আমাদের শরীরে যতগুলি অঙ্গ প্রত্যঙ্গ রয়েছে তার মধ্যে হার্ট বা হৃৎপিন্ড অত্যদিক গুরুত্বপূর্ণ । এর প্রধান কাজ হচ্ছে রক্তকে পাম্প করে সারা শরিরে প্রবাহিত করা । সুতরাং বুঝতেই পারছেন এর গুরুত্ব কতখানি । এর ক্ষমতা কমে যাওয়া মানে সারা দেহে রক্ত প্রবাহের ঘাটতি । আর রক্ত প্রবাহের ঘাটতি মানেই অন্যান্য সকল অঙ্গের কার্য্যক্ষমতা কমে যাওয়া । আর এটি যদি অধিক পরিমাণে অসার হয়ে পড়ে তবে তার মৃত্যু পর্যন্ত হতে পারে। তাই আজ এই হৃৎপিন্ড কিভাবে সচল ও সুন্দর রাখা যায় সে সম্পর্কে আলোচনা করব । আমরা সাধারণত যেটি চেষ্টা করি প্রাকৃতিক উপায়ে কিভাবে একটি সমস্যার সমাধান করা যায় সেটি । এরই অংশ হিসেবে আজ আপনাদের সামনে দুটি খুবই সহজলোভ্য ফল নিয়ে আলোকপাত করব যেগুলো হৃৎপিন্ডকে স্বাভাবিক রাখতে অসীম ভূমিকা পালন করে। তার একটি হচ্ছে অলিভ ওয়েল বা জলপাইয়ের,তেল আরেকটি হচ্ছে লেবুর রস । হৃৎপিণ্ডের জন্য জলপাইয়ের তেল ও লেবুর উপকারিতা সম্পর্কে জানাই আমাদের আজকের টপিক ।

 

তাহলে চলুন শুরু করা যাক কিভাবে এগুলোর ব্যবহার করে আপনি আপনার হৃৎপিন্ডটিকে সুস্থ রাখতে পারেন-

 

জলপাইকে লিকুইড গোল্ড বা তরল স্বর্ণ বলা হয় । জলপাইয়ের তেলের মধ্যে রয়েছে স্বাস্থ্যকর ফ্যাটি এসিড। এটি শরীরের

ক্ষতিকর কোলেস্টেরল কমায় এবং বিষাক্ত পদার্থ দূর করতে কাজ করে ।  বিশেষজ্ঞরা বলেন, প্রতিদিনের খাদ্যতালিকায়

জলপাইয়ের তেল রাখা ভালো । যখন কোন মানুষের শরীরের রক্তে ফ্রি র‌্যাডিকেল অক্সিডাইজড কোলেস্টেরেলের মাত্রা বেড়ে

যায় তখন হার্টঅ্যার্টাকের ঝুঁকি থাকে। জলপাইয়ের তেল হার্টঅ্যার্টাকের ঝুঁকি কমায় । জলপাইয়ের এ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রক্তের

কোলেস্টেরেলের মাত্রা কমায়।ফলে কমে যায় হৃদরোগের ঝুঁকি।হৃদযন্তের যত্নে কাজ করে জলপাই ।

 

এরপর আসা যাক লেবুতে । লেবুর রয়েছে অসাধারণ এবং অসীম ভেসজ গুনাগুন যেগুলো মানুষের জন্য খুবই উপকারী। এখন

দেখা যাক এটি হৃৎপিণ্ডের  জন্য কতটা উপকারী-

লেবুর মধ্যে রয়েছে ভিটামিন সি, অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট ও পুষ্টি। এ ছাড়া রয়েছে পটাশিয়াম, ফসফরাস, ভিটামিন বি, প্রোটিন,

কার্বোহাইড্রেট । সকালে খালি পেটে এক কাপ পাকা লেবুর রস মেশানো উষ্ণ জল খান, আর তারপর দেখুন  কি হয়! আর যদি

তাতে যোগ হয় মধু, তাহলেতো জাদু।লেবুর কত গালভরা নাম কাগজি লেবু, পাতি লেবু, কমলা লেবু, মোসাম্বি লেবু, গন্ধরাজ,

বাতাবি লেবু ও গোড়ালেবু তার আর ইয়ত্যা নেই। এগুলো যে শুধু আপনার হার্টকেই সুস্থ রাখবে তাই না।আপনার সারা শরীরের

জন্যও ব্যপক কার্যকরী । তাই অবশ্যই খাবারে লেবু রাখুন ।

 

অন্যদিকে এই দুটি অর্থ্যাৎ লেবু ও জলপাইয়ের মিশ্রণ শরীরের জন্য বেশ উপকারী । এক চা চামচ জলপাইয়ের তেলে একটি

লেবুর রস মিশিয়ে খান। প্রতিদিন এটি খাওয়া শরীরের জন্য ভিশন উপকারি । স্বাস্থ্যবিষয়ক ওয়েবসাইট হেলদি ফুড টিম প্রকাশ

করেছে এ-সংক্রান্ত একটি প্রতিবেদন। চাইলে গিয়ে এর সত্যতা যাচাই করে দেখে নিতে পারেন ।

 

আজ খুব সংক্ষেপে লেবু এবং জলপাই তেলের গুনাগুন সম্পর্কে তুলে ধরা হল । পরবর্তীতে লেবু এবং জলপাই এর গুনাগুন

গুলো আলাদা আলাদা ভাবে পোস্ট করা হবে।সেগুলোর আপডেট পেতে নিয়মিত ভিজিট করুন আমাদের সাইটটি।ভালো

থাকুক আপনি আপনার পরিবার আজ এই কামনায় এখানেই লেখাটি সমাপ্ত করছি,ধন্যবাদ ।