এক প্রকার লেবু জাতীয় টক-মিষ্টি ফল জাম্বুরা । এই ফলটি কে জাম্বুরা, বাতাবি লেবু বা বাদামি ও বলে। কাঁচা ফলের বাইরের দিকটা সবুজ এবং পাকলে হালকা সবুজ বা হলুদ রঙের হয় । এর ভেতরের কোয়াগুলো সাদা বা গোলাপী রঙের। এর খোসা বেশ পুরু এবং খোসার ভিতর দিকটা ফোম এর মত নরম । লেবু জাতীয় ফলের মধ্যে এটাই সবচেয়ে বড়; যা ১৫-২৫ সেমি ব্যাসবিশিষ্ট হয়ে থাকে। এর আদিভূমি দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া । আজ আমরা জানব এই জাম্বুরার পুষ্টিগুণ এবং স্বাস্থ্য উপকারিতা সম্পর্কে । তাহলে চলুন মূল আলোচনায় যাওয়া যাক-

 

জাম্বুরার পুষ্টিগুণ

জাম্বুরার পুষ্টিগুণ সম্পর্কে বাংলাদেশ গার্হস্থ্য অর্থনীতি কলেজের খাদ্য ও পুষ্টিবিজ্ঞান বিভাগের প্রধান ফারাহ মাসুদা বলেন, প্রতি

১০০ গ্রাম খাদ্যযোগ্য জাম্বুরায় রয়েছে: খাদ্যশক্তি ৩৮ কিলোক্যালরি । প্রোটিন ০.৫ গ্রাম। স্নেহ ০.৩ গ্রাম। শর্করা ৮.৫ গ্রাম ।

খাদ্যআঁশ ১ গ্রাম। থায়ামিন ০.০৩৪ মিলি গ্রাম। খনিজ লবণ ০.২০ গ্রাম। রিবোফ্লেভিন ০.০২৭ মিলি গ্রাম। নিয়াসিন ০.২২ মিলি

গ্রাম। ভিটামিন বি২ ০.০৪ মিলি গ্রাম । ভিটামিন বি৬ ০.০৩৬ মিলি গ্রাম। ভিটামিন সি ১০৫ মিলি গ্রাম। ক্যারোটিন ১২০ মাইক্রো

গ্রাম । আয়রন ০.২ মিলি গ্রাম । ক্যালসিয়াম ৩৭ মিলি গ্রাম । ম্যাগনেসিয়াম ৬ মিলিগ্রাম। ম্যাংগানিজ ০.০১৭ মিলিগ্রাম ।

ফসফরাস ১৭ মিলিগ্রাম । পটাশিয়াম ২১৬ মিলিগ্রাম। সোডিয়াম ১ মিলিগ্রাম ।

 

জাম্বুরার স্বাস্থ্য উপকারিতা

রক্তনালীর সংকোচন প্রসার– জাম্বুরা তে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি তাই রক্তনালীর সংকোচন প্রসারণ ক্ষমতা বৃদ্ধিতে

সহায়তা করে।

ডায়াবেটিস– জাম্বুরা খেলে ডায়াবেটিস কন্ট্রোল থাকে। জ্বর জ্বর আসলে জাম্বুরা খেলে জ্বর ভাল হয়ে যায়।

ক্যান্সার প্রতিরোধে– প্রতিদিন এক গ্লাস করে বাতাবি লেবু জুস করে খান। ক্যান্সার প্রতিরোধে কাজ করবে এটি।

কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণ– জাম্বুরা কোলেস্টেরল নিয়ন্ত্রণ করে। সাথে বিভিন্ন ধরনের হৃদরোগের থেকে রক্ষা করে।

ওজন কমাতে– ওজন কমাতে বিশেষভাবে সাহায্য করে এটি ।

তাছাড়া রক্ত পরিষ্কার করে, নিদ্রাহীনতা, মুখের ভেতরে ঘা, পাকস্থলী ও অগ্ন্যাশয়ের বিভিন্ন রোগ নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে।

 

জাম্বুরার জুস বা স্যুপ এর পুষ্টিগুণ এবং স্বাস্থ্য উপকারিতা

বাতাবী লেবু বা জাম্বুরা সাধারণত খোসা ছাড়িয়ে ভেতরের কোষগুলো খাওয়া হয় । এছাড়া জুস করে, ফ্রুট সালাদ হিসেবে, বিভিন্ন

ধরনের ক্যান্ডি বা চকোলেট তৈরিতে বাতাবি লেবু বা জাম্বুরা ব্যবহার করা হয়। মিষ্টি স্যুপ তৈরিতেও ব্যবহার করা হয় বাতাবী লেবু ।

কাটা বা ক্ষত সারাতে যে কোনো ধরনের কাটা ছেঁড়া ও ক্ষত সারাতে জাম্বুরার জুড়ি নেই। যকৃত, দাঁত ও মাড়ির সুরক্ষায় জাম্বুরা

অতুলনীয়। তাছাড়া অ্যান্টি অক্সিডেন্ট থাকায় জাম্বুরা বয়স ধরে রাখতে সহায়তা করে এবং বুড়িয়ে যাওয়া বিলম্বিত করে ।

 

উপরে একটি অতিসাধারণ ফল জাম্বুরার পুষ্টি গুন এবং স্বাস্থ্য উপকারীতা সম্পর্কে বর্ননা করা হল । এই ফলটিকে আমরা

অনেকেই গ্রাম্য সাধারণ ফল হিসেবে অবজ্ঞা করি কিন্তু উপরে যেসব বার্তা তুলে ধরা হল তারপর আশা করি কারো কাছেই আর

এমনটি মনে হবে না । এটি একটি মৌশুমী ফল । আর সাধারন ভাবেই আমরা জানি প্রতিটা মৌসুমি ফলই হয় দারুন পুষ্টি গুন

সম্পন্ন । তাই অবশ্যই নিজে এবং পরিবারকে এই ফলটি সম্পর্কে জানান এবং অল্প পরিমানে হলেও খান ।