আজ আপনাদের জন্য নিয়ে এলাম চমৎকার একটি পর্ব, প্রাকৃতিক উপায়ে সর্দি কাশি থেকে মুক্তির উপায় সম্পর্কে ।

আমাদের কার সর্দী কাশি না লাগে । অনেকের তো এমন হয় যে জাস্ট বৃষ্টির দু ফোটা পানি মাথায় পড়ল তো শুরু হয়ে গেল শর্দি

কাশি নামক অস্বস্থিকর রোগটি!অনেকের ক্ষেত্রে দেখা যায় তাপমাত্রার একটু এদিক থেকে সেদিক হলেও একই অবস্থা তৈরী

হয়। প্রথমে নাক দিয়ে অল্প অল্প পানি পড়া এরপর সেখান থেকে সর্দি এবং কাশি দিয়ে শেষ হওয়া । আসলে এটা রোগ হিসেবে

যতটা না কঠিন তার চেয়ে এর প্যারা টা আরো অনেক বেশি কঠিন!এর জন্য আমরা অনেকেই অনেক ধরনের ঔষধও হয়ত

সেবন করে ফেলেছি কিন্তু তেমন কোনো ফল পাননি। তাই আজ আমরা জানবো প্রাকৃতিক উপায়ে সর্দি কাশি থেকে মুক্তির

উপায় । তাহলে চলুন শুরু করা যাক-

 

প্রাকৃতিক উপায়ে সর্দি কাশি থেকে মুক্তির উপায় এবং করনীয় ।

এর জন্য আমাদের যা লাগবে– আমাদের সবার পরিচিত পেয়াজ এবং সরিষার তেল । আজ আমরা জনব কিভাবে এই ২টি

জিনিস দিয়ে আমাদের সর্দি এবং কাশি সারাতে পারি। আর দেরি নয় । চলুন আমরা জেনে নেই ।

 

প্রস্তুত প্রণালী- প্রথমে আমরা ১টি পেয়াজ ছিলিয়ে নিয়ে সেটি খুব ভাল করে পানিতে ধুয়ে নিব । এরপর আমরা পেয়েজ টি ভাল

ভাবে কুচি কুচি করে কেটে নিব । কেটে নেওয়া পেয়াজ কুচিগুলোর সাথে আমরা পেয়াজের পরিমান মত সরিষিয়ার তেল নিব ।

এখন আমরা সরিষার তেল পেয়াজের সাথে ভাল ভাবে মিশিয়ে নিব । এখন আমাদের ১টি  পাত্র চুলায় দিয়ে গড়ম করে তাতে

পেয়াজ কুচি এবং সরিষার তেল টুকু দিয়ে দিব । অল্প অল্প করে জাল দিতে হবে,কারণ এটি কোনো রান্না নয়! যখন দেখবেন তেল

গরম হয়ে গেছে এবং পেয়াজের কালার একটু পালটে গেছে । এখানে মূল বিষয় হচ্ছে,পেয়াজের নির্জাস টুকু বের করে

নেওয়া । এরপর হয়ে গেলে তা নামিয়ে নিন,ঐ অবস্থায়ই ব্যবহার করতে যাবেন না! তেল যদি বেশি গরম হয়ে থাকে তাহলে

হালকা ঠন্ডা করে নিন । মোট কথা কুসুম গড়ম তেল আমাদের লাগবে বা এটাই বেস্ট,ভাল ফলাফলের জন্য

 

ব্যবহার- আমরা পেয়াজে জাল করা তেল প্রথমে হাতের তালুতে নিয়ে পুরো তালুতে মেখে বা লাগিয়ে নিব । এরপর আমরা তেল

টা গলায়,নাকে ,বুকে মালিশ করব । এরপর চাইলে আপনি বাকী পেয়াজটুকু খেতেও পারেন,ফেলেও দিতে পারেন । তবে খেতে

পারলে ভাল ।

 

ব্যবহারের সময়-

দিনে ২বার মালিশ করা উত্তম,

১। সকালে ঘুম থেকে উঠে মালিশ করা এবং

২। রাতে ঘুমানোর পূর্বে  মালিশ করে ঘুম যাওয়া ।

এভাবে ২দিন থেকে ৩দিন নিয়মিত মালিশ করলে ইনশা আল্লাহ কাজ হবে যাবে ।

 

আশা করি উপরের এই ছোট্ট টিপ্সটিতে অনেকের উপকারে আসবে । এছাড়াও আরো অনেক প্রাকৃতিক উপাদান রয়েছে

যেগুলো সর্দি কাশি দূর করতে সক্ষম । খুব বেশি বানোয়াট মনে হলে দয়া করে নিজে দু একবার ট্রাই করে দেখে নিবেন আগে ।

ধন্যবাদ ।