স্বাস্থ্যকর খাবার কিভাবে তৈরী করবেন

 

একটি গাড়ি বা যেকোনো যানবাহন চলতে বা সেটিকে সচল রাখতে তাকে জ্বালানী বা তেল দিতে হয় । প্রকৃত অর্থে এই তেল বা জ্বালানী হচ্ছে সেই গাড়ির খাবার ! একটি যানের খাবার যত ভাল মানের হবে সেই গাড়িটি ঠিক তত ভাল সেবা দিবে । আমরা মানুষও ঠিক গাড়ির মতই । আমাদের সচল থাকতে বা শরীরে শক্তি অথবা কর্ম ক্ষমতা যোগাতে খাবারের প্রয়োজন পড়ে । খাবার যত ভাল মানের হবে আমাদের মানব রূপ গাড়ির অবস্থাও ততটাই ভাল হবে । তাই আমাদেরকে অবশ্যই স্বাস্থ্যকর খাবার খেতে হবে । এখন কথা হচ্ছে, স্বাস্থ্যকর খাবার কিভাবে তৈরী করবেন ?

একটি স্বাস্থ্যকর ভারসাম্যযুক্ত খাদ্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ কারণ এটি আমাদের দেহকে সচল রাখতে সহায়তা করে, দেহের জন্য প্রয়োজনীয় পুষ্টি সরবরাহ করে এবং আমাদের স্বাস্থ্য সুন্দর করে । ভারসাম্যযুক্ত খাদ্য বলতে এখানে একটি সুষম খাদ্য তালিকাকে বোঝানো হচ্ছে । যে খাবারের আপনার শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় সকল উপাদানই বিদ্যবান থাকবে । তাই আমাদের জানতে হবে কোন কোন খাবার গুলো দিয়ে আমাদের খাবারের রুটিন সাজাতে হবে । তাই আর দেড়ি না করে চলুন জেনে নেওয়া যাক-

 

স্বাস্থ্যকর খাবার তালিকা যেভাবে তৈরী করবেন

শর্করা জাতীয় খাবার

আপনার সমস্ত প্রধান খাবারে প্রায় 60%

কার্বোহাইড্রেট বা শর্করা জাতিয় খাবার থাকা উচিত ।

এগুলি আপনার ক্যালোরি উপাদান এবং আপনাকে

দৈনিক ভিত্তিতে শক্তি স্তর এর মাঝে ভারসাম্য বজায়

রাখতে সহায়তা করে । তবে আপনার অত্যধিক

কার্বোহাইড্রেট গ্রহণ করা থেকে বিরত থাকতে হবে

কারণ এর মধ্যে অনেকগুলি আপনার রক্তে ওজন বাড়িয়ে তোলে এবং সুগারের মাত্রা বাড়িয়ে তুলতে পারে । তাই আপনাকে

সঠিক কার্বোহাইড্রেট গ্রহণ করতে হবে এবং সঠিক মাত্রায় ।

 

 

প্রোটিনযুক্ত খাবার 

প্রোটিন বা আমিশ মানুষের জন্য খুবই প্রয়োজনীয় একটি উপাদান । তাই আপনার খাদ্য প্রোটিন যুক্ত হওয়া আবশ্যক । এগুলি অত্যাবশ্যক কারণ এগুলি শরীরকে পর্যাপ্ত পরিমাণে বিকাশে সহায়তা করে এবং আপনাকে বিভিন্ন সংক্রমণ থেকে রক্ষা করে ।  যারা ডায়েট করেন তাদের জন্য এটি আরো বেশি প্রয়োজন । আপনার ডায়েটের উত্তম বিকল্পগুলি হল, দুগ্ধজাত খাবার, ডিম, মাছ, হ্যাজনেল্ট, আখরোট এবং চর্বিযুক্ত মাংসের মতো খাবারগুলি চালু করা উচিত । তবে চর্বি যুক্ত মাংস গ্রহনের ব্যাপারে একটু সতর্ক থাকা বাঞ্চনীয় । এছাড়াও কিছু শিম এবং অন্যান্য জাতীয় নিরামিষ খাবারেও প্রয়োজনীয় প্রোটিন থাকে। তাই দেখে শুনে বুঝে প্রোটিন গ্রহন করুন । প্রয়োজনে সতর্কতা অবলম্বন করুন কিন্তু খাবার তালিকা থেকে প্রোটিন সরিয়ে ফেলবেন না ।

 

 

চর্বিযুক্ত খাবার

যদিও অনেক লোক এগুলি থেকে দূরে থাকার চেষ্টা করে, কিন্ত চর্বি আসলে একটি স্বাস্থ্যকর খাবারে গুরুত্বপূর্ণ একটি অঙ্গ। আমাদের দেহগুলি এই চর্বি বিভিন্নভাবে ব্যবহার করে । উদাহরণস্বরূপ, আমাদের দেহের কোষগুলির ঝিল্লি চর্বি দ্বারা তৈরি, চর্বিগুলি আমাদের উষ্ণ রাখে এবং তারা দিনের জন্য প্রয়োজনীয় শক্তি সরবরাহ করে । তবে, আপনি যে পরিমাণ চর্বি গ্রহণ করছেন সে সম্পর্কে আপনার সতর্ক হওয়া উচিত এবং ট্রান্স ফ্যাট এবং প্রক্রিয়াজাত খাবারগুলি থেকে দূরে থাকার চেষ্টা করবেন । আপনার খাবারের জন্য ভাল ফ্যাটগুলির সর্বোত্তম বিকল্প উৎস হতে পারে অপ্রসারণিত তেল যেমন অতিরিক্ত কুমারী জলপাই তেল ইত্যাদি ।

 

 

ফলমূল ও শাকসবজি

প্রতিটি খাবারের অর্ধেকের মধ্যে শাকসবজি বা ফল থাকতে হবে । ফল এবং সবজি গুলো গুরুত্বপূর্ণ কারণ তারা বিভিন্ন ভিটামিন, ফাইবার, পানিতে সমৃদ্ধ এবং এগুলিতে ফ্যাট এবং ক্যালোরি কম থাকে । যদি আপনি ফল এবং সবজির মাধ্যমে আপনার খাবারের পরিকল্পনা করতে চান তবে আপনি একটি পুষ্টিকর খাবার তৈরি করতে পারেন যা আপনাকে ক্যালোরি কম দেবে তবে আপনার শরীরের জন্য তা অত্যন্ত উপকারী । তদুপরি, অনেকগুলি ফল এবং শাকসবজি প্রয়োজনীয় খনিজ এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্টগুলির একটি ভাল উত্স যা ক্যান্সার প্রতিরোধ এবং সেলুলার মেরামত সহ আপনার দেহকে বিভিন্ন উপায়ে সংরক্ষণ করতে পারে । সুতরাং, আপনার প্রতিটি খাবার স্বাস্থ্যকর হতে পারে, আপনার লৌহ এবং ফলিক অ্যাসিড বেশি পরিমাণে সবুজ শাকসবজি, পটাসিয়াম এবং ভিটামিন সি সমৃদ্ধ হলুদ এবং কমলা ফলের পাশাপাশি আরও অনেক রঙের ফলের এবং সবজি নিতে পারেন । প্রতিটি খাবারে আপনি যত বেশি রঙ যুক্ত করবেন, আপনার শরীরে খনিজ এবং ভিটামিনের সর্বাধিক অনুকূল স্তর তৈরী হবে ।

 

স্বাস্থ্যকর খাবার হল একটি স্বাস্থ্যকর ডায়েটের একটি অংশ যা একটি স্বাস্থ্যকর শরীর এবং মনের অংশ । সুতরাং, আপনি যদি এই সমস্ত অর্জন করতে চান তবে আপনার প্রতিটি খাবারে এই প্রয়োজনীয় পুষ্টিগুলিকে অন্তর্ভুক্ত করার দিকে মনোযোগ দেওয়া উচিত । তাহলেই কেবল আপনি পেতে পারেন একটি সুস্থ্য এবং সুন্দর জীবন ।